মালয়েশিয়ায় রাজনৈতিক অস্থিরতার মধ্যে করোনা রোধে জরুরি অবস্থা

দেশজুড়ে আবারও কঠোর লকডাউন শুরুর ঠিক একদিন আগে এ সিদ্ধান্তের ঘোষণা এলো।

মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) দ্য গার্ডিয়ান এ তথ্য জানায়।

এদিকে, সমালোচকরা বলছেন, এ সিদ্ধান্তের মাধ্যমে মালয়েশিয়ার অস্থিতিশীল সরকার ক্ষমতা আঁকড়ে ধরে রাখতে চাইছে।

প্রধানমন্ত্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিনের অনুরোধে রাজা সুলতান আবদুল্লাহ সুলতান আহমাদ শাহ ১ আগস্ট পর্যন্ত জরুরি অবস্থা জারির ঘোষণা দিয়েছেন। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে এলে জরুরি অবস্থা দ্রুত শিথিল করা হবে বলেও জানানো হয়।

জরুরি অবস্থা জারির কারণে মুহিউদ্দিন ও তার মন্ত্রিসভার ক্ষমতার ব্যাপ্তি বাড়বে। এসময় সংসদ স্থগিত থাকায় অনুমোদন ছাড়াই নতুন আইন প্রবর্তন করতে পারবে সরকার। এমনকি নির্বাচনও স্থগিত থাকবে।

মঙ্গলবার সকালে এ ঘোষণা দেওয়ার পর রাজধানী কুয়ালালামপুর এবং পাঁচ রাজ্যজুড়ে নতুন বিধিনিষেধ জারির প্রস্তুতি নিচ্ছে। অন্যদিকে, বুধবার (১৩ জানুয়ারি) থেকে কঠোর লকডাউন থাকায় সামাজিক কার্যক্রম এবং দু’সপ্তাহের জন্য আন্তঃরাজ্য ভ্রমণ নিষেধ। এসময় অধিকাংশ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানও বন্ধ থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *